চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে দেখা দিয়েছে নোবেল করোনা নামের ভাইরাস। এই ভাইরাসে সেই সহরে ইতিমধ্যে হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। অর্ধশতাধিক মানুষ মারা গেছেন।

১৩ টিরও বেশি দেশে এই ভাইরাস ইতিমধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে। এমনকি আমাদের পার্শ্ববর্তী ভারত এবং নেপালে পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত মানুষ সনাক্ত করা হয়েছে।

গবেষকরা বিজ্ঞানীরা বলছেন, এ ভাইরাসটি যদি গোটা পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়ে তাহলে ০৬ কোটির বেশি মানুষ মৃত্যুবরণ করতে পারে এবং বাংলাদেশের মতো জনবহুল দেশে আল্লাহ না করুন এই ভাইরাসটি যদি ছড়িয়ে পড়ে, তাহলে ভয়াবহ বিপর্যয় আসতে পারে আমাদের দেশের উপরে।

আমরা সকলেই অবগত হয়েছি, চিনের সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যে সেই প্রদেসে বাহির থেকে কোন মানুষকে সেখানে ঢুকতে দেয়া হবে না এবং সে শহরের কোন মানুষকে বাহির হতে দেয়া হবে না

আপাতত এই ব্যবস্থার মাধ্যমে যাতে সেই ভাইরাসটি গোটা পৃথিবীতে ছড়িয়ে না পড়ে এবং খুব দ্রুত যাতে এ সমস্যা থেকে উত্তোলন করা যায় সেজন্য কিন্তু এ পদ্ধতিটি আমরা সবাই স্বীকার করছি।

মজার বিষয় হল, রাসূলে কারীম সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম বুখারি এবং মুসলিমে বর্ণিত এক হাদীসে  আব্দুর রহমান ইবনে আউফ রাঃ হাদিসটি বর্ণনা করেছেন,

সেখানে রাসুল (সাঃ) এই ধরনের একটি পরামর্শ দিয়েছেন দেড় হাজার বছর আগে, সেই পরামর্শটি জেনে হোক আর না জেনে হোক  অনুসরণ করছেন আজকে চাইনিজ সরকার এবং আমরা গোটা পৃথিবীর মানুষ এটাকে সমর্থন করছি।

রাসুল (সাঃ) বলেছেন, পৃথিবীর কোন দেশে বা কোন অঞ্চলে যদি কোন প্রকার প্লেগ বা মহামারী জাতীয় সমস্যা দেখা দেয় তাহলে সে ক্ষেত্রে তোমরা যারা বাহিরে আছো তারা ঐ শহরে প্রবেশ করবে না আর সেই শহরে যে শহরে সমস্যা দেখা দিয়েছে, এই মহামারী ছড়িয়ে পড়েছে সেই শহরে তোমরা যারা বসবাস কর সেখান থেকে তোমরা বাহির হয়ে আসবে না অন্যত্র।

তাহলে আজ চাইনিজ সরকার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এই অসুস্থতাকে এই রোগকে এই ভাইরাসকে তথাকথিত মোকাবেলা করবার জন্য, রাসুলে কারীম সাল্লাল্লাহু সালাম কিন্তু হাজার বছর আগে এই ধরনের কার্যক্রম গ্রহণ করবার জন্য, এধরনের কর্মপন্থা গ্রহণ করবার জন্য আমাদেরকে পরামর্শ দিয়েছেন। আজকে সেটাই আমরা বুঝতে পারছি।

 

তাই এখনি জেনে নিন এই ভাইরাস থেকে আত্মরক্ষার দুটি দোয়া

اَللّهُمَّ إِنِّيْ أَعُوْذُ بِكَ مِنَ الْبَرَصِ وَالْجُنُوْنِ وَالْجُذَامِ وَمِنْ سَيِّءِ الأَسْقَامِ অর্থঃ- হে আল্লাহ! অবশ্যই আমি তোমার নিকট ধবল, উন্মাদ, কুষ্ঠরোগ এবং সকল প্রকার কঠিন ব্যাধি থেকে আশ্রয় প্রার্থনা করছি।

(আবু দাঊদ, তিরমিজী)

اَللّهُمَّ إِنِّيْ أَعُوْذُ بِكَ مِنْ مُنْكَرَاتِ الأَخْلاَقِ وَالأَعْمَالِ وَالأَهْوَاءِ وَالأَدْوَاءِ

অর্থঃ- হে আল্লাহ! অবশ্যই আমি তোমার নিকট দুশ্চরিত্র, অসৎ কর্ম, কুপ্রবৃত্তি এবং কঠিন রোগসমূহ থেকে আশ্রয় চাচ্ছি। (তিরমিজী)

 

শায়খ আহমাদুল্লাহ হুজুরের বয়ান থেকে সংগৃহীত

দ্বীনি কথা শেয়ার করে আপনিও ইসলাম প্রচারে অংশগ্রহণ করুন।